‘আইডল হওয়ার যোগ্য নন নেইমার’                 ১ এপ্রিল বিয়ানীবাজারে মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই                 আগামী প্রজন্মে যোগ দিলেন ছারওয়ার হোসেন ও জুনেদ ইকবাল                 নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে মেসির প্রতিবাদ                 বৃষ্টি হলেই হাঁটুপানি!                 খাসা তরুণ সংঘ’র সভাপতি মামুনের পিতার ইন্তেকাল, বিভিন্ন মহলের শোক                 শিক্ষার্থীদের জ্ঞানের সম্পদ সঠিকভাবে বৃদ্ধি করতে পারলে আমরা এগিয়ে যাব : ড. জাফর ইকবাল                

মৌচাক সব গেল কোথায়?

: বিয়ানীবাজার কন্ঠ
Published: 14 03 2017     Tuesday   ||   Updated: 14 03 2017     Tuesday
মৌচাক সব গেল কোথায়?

জুনেদ ইকবাল ::
‘মৌমাছি মৌমাছি কোথা যাও নাচিনাচি- দাঁড়াও না একবার ভাই/ ওই ফুল ফোটে বনে, যাই মধু আহরণে, দাঁড়াবার সময়তো নাই।’ নবকৃষ্ণ ভট্টাচার্যের কবিতায় উল্লেখিত এই মৌমাছিরা হচ্ছে প্রাকৃতিক মৌমাছি। পরিবেশের পরিবর্তনে হারিয়ে যাচ্ছে অনেক কিছুই। স্বার্থপর মানুষের অবিবেচনায় অন্যান্য অনেক পতঙ্গের মতো হারিয়ে যেতে বসেছে প্রাকৃতিক মৌমাছিরাও। উড়ে চলা মৌমাছিদের ঝাঁক সহজে এখন আর দেখা যায় না। বাড়ির আঙ্গিনায় চোখে পড়ে না গাছে ঝুলে থাকা ঢাউস কোন মৌচাক। তবে পালিত মৌমাছি অর্থাৎ চাষ করা মৌমাছির এখন সুদিন চলছে।
প্রাকৃতিক বন আগের মতো নেই। সেখানে ফুলও ফোটে কম। ফলে গুনগুনিয়ে মধু আহরণে যাবার সুযোগও সংকুচিত হয়েছে মৌমাছির। চাক বাঁধার জায়গা কোথায় আর মৌমাছিদের? মাঠের ধারের সেই বড় ছায়াধার বৃক্ষতো সেই কবে গিলে খেয়েছে ইটভাটা। যেটুকু বন আছে তাও নির্বিচারে কেটে ফেলা হচ্ছে। জমিতে ব্যবহার বেড়েই চলেছে প্রাণঘাতী কীটনাশকের। ফলে শ্রমী ক্ষুদ্র প্রাণিটি জীবন ও প্রজনন রক্ষায় কুলিয়ে উঠতে পারছে না। একসময় বিয়ানীবাজার উপজেলার প্রায় সর্বত্র গৃহস্থ বাড়ির পাশের গাছটিতেও মৌসুম তো বটেই, অমৌসুমেও মৌমাছিদের চাক চোখে পড়তো। প্রবাদ আছে, মৌমাছিরা নাকি গ্রামের মানুষের ভালো-মন্দ বুঝে চাক বাঁধতো। আর মৌমাছিদের ঝাঁক যখন উড়ে যেতো, গৃহস্থ বধূরা ঢেঁকিতে পাড় দিতো। যাতে মৌমাছি ঢেঁকির শব্দ শুনে তার বাড়িতে চাক বাঁধে। মধুর বহু গুণ। সর্দি-কাশি ছাড়াও শরীরের অভ্যন্তরীণ প্রণালী পরিষ্কার করে শরীর ঝরঝরে এবং ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে মধুর জুড়ি নেই। এছাড়া অধিকাংশ আয়ুর্বেদ ওষুধ সেবনে মধু অপরিহার্য। কিন্তু ভেজালের ভিড়ে খাঁটি মধু পাওয়া কঠিন হয়ে পড়েছে। গাছের ডাল ও দালান ঘরের কার্নিশে মৌচাকের দেখা এ উপজেলায় একসময়ে অহরহ মিললেও এখন মৌচাক খুঁজে ফিরতে হয়। স্থানীয় মধু ব্যবসায়ীরা ধোঁয়া দিয়ে মৌমাছি তাড়িয়ে মধু সংগ্রহ করলেও ৮০ ভাগ মধুই নষ্ট হয়ে যায়। প্রাকৃতিক এই মৌমাছি রক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা ও মধু সংগ্রহে সাবধানতা অবলম্বন করলে মৌমাছির বংশবিস্তারে সহায়ক হতো বলে মনে হয়।

Share Button
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  



Share Button





March 2017
S S M T W T F
« Feb    
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031

devolop web-it-home, 2017